সুনীল মেনে নিলেন, ‘বড্ড রক্ষণাত্মক হয়ে পড়েছিলাম’

রাইট স্পোর্টস ওয়েব ডেস্ক কলকাতা, ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ চার মিনিট। শুধুই ২৪০ সেকেন্ড! ভারতীয় ফুটবল আর ইতিহাসের মাঝে ছিল ওই চার মিনিট। হুঁশিয়ার ছিলেন কাণ্ডারি প্রণয় হালদার, ম্যাচজুড়ে। একটা ভুল, বিদায়। খেলার জগৎ বড় নিষ্ঠুর! ফুটবলাররা হতাশ, বিপর্যস্ত, ক্রুদ্ধও। রাগ নিজেদের ওপরেই। তা থেকেই হতাশা। দুমড়েমুচড়ে গিয়েছেন। এত কাছে এসে এভাবে ফিরতে হবে, ভাবতে পা্রছেন না এখনও। দ্বিতীয়ার্ধে সবাই মিলে ড্রয়ের জন্য রক্ষণাত্মক

পদত্যাগ করলেন স্টিফেন কনস্টান্টাইন

রাইট স্পোর্টস ওয়েব ডেস্ক কলকাতা, ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ ভারতের জাতীয় ফুটবল দলের কোচের চাকরি ছেড়ে দিলেন স্টিফেন কনস্টান্টাইন। এএফসি এশিয়ান কাপে বাহরিনের কাছে ৯১ মিনিটের পেনাল্টি-গোলে হেরে বিদায় নেওয়ার পরই। ২০১৫ সালের জানুয়ারি মাসে দ্বিতীয়বার ভারতের জাতীয় দলের কোচ হয়ে এসেছিলেন যখন, ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ভারত ছিল ১৭৩তম স্থানে। ছেড়ে যাওয়ার সময় ভারত ৯৭। এএফসি কাপের মূলপর্বে খেলেছে এবং গ্রুপ লিগের

আজ শারজায় ইতিহাসের হাতছানি, বাঙালি প্রণয়ের নেতৃত্বে?

কাশীনাথ ভট্টাচার্য কলকাতা, ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ শারজা মানেই চেতন শর্মার শেষ বলে জাভেদ মিয়াঁদাদের সেই ছক্কা! ইতিহাস বলছে, অস্ট্রেলেশিয়া কাপের সেই ফাইনাল হয়েছিল ১৮ এপ্রিল, ১৯৮৬। মাঝে ৩২ বছর ৯ মাস প্রায়। সুনীল ছেত্রীরা কি পারবেন শারজার দুঃসহ স্মৃতি চিরতরে ভুলিয়ে দিতে, সোমবার? মাঠ আলাদা। শারজার ক্রিকেট স্টেডিয়াম যেখানে ক্রিকেটার্স বেনিফিট ফান্ড সিরিজ (সিবিএফএস) অনুষ্ঠিত হত আবদুল

সুযোগ নষ্টের প্রদর্শনী, হার সুনীলদের

কাশীনাথ ভট্টাচার্য কলকাতা, ১০ জানুয়ারি ২০১৯ ভারত – ০ আমিরশাহি - ২             (মুবারক ৪২, মাবখৌত ৮৮) আকাশ থেকে মাটিতে? একেবারেই নয়! আবুধাবির জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে আয়োজক সংযুক্ত আরব আমিরশাহির বিরুদ্ধে সবই করলেন ভারতীয় ফুটবলাররা, পেলেন না শুধু গোলের দেখা। গোটা ছয়েক সুযোগ তৈরি করেও গোল করতে না-পারা অবশ্যই ব্যর্থতা, নিঃসন্দেহে। কিন্তু, ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ৭৯ আমিরশাহির বিরুদ্ধে আক্রমণে গিয়েই গোলমুখ

‘সুনীল’ আকাশে ভারতীয় ফুটবলকে নিয়ে উড়লেন ‘ছেত্রী’!

কাশীনাথ ভট্টাচার্য কলকাতা, ৬ জানুয়ারি ২০১৯ থাইল্যান্ড - ১     ভারত – ৪ (দাংদা ৩৩ )     (সুনীল ২৭ পে, ৪৭, অনিরুধ ৬৮, জেজে ৮০) প্রতিদিন সূর্য ওঠে তোমায় দেখবে বলে, সুনীল ছেত্রী! কবীর সুমনের গানের কলি ধার করতে ইচ্ছে হয় আবার, চৌঁত্রিশের ছেত্রী যখন সুনীল আকাশে নিয়ে যান অভাগা ভারতীয় ফুটবলকে। সম্ভাবনা তৈরি হয় এক অসম্ভব স্বপ্নিল উড়ানের,

বাছাইপর্ব থেকে কীভাবে আবুধাবিতে সুনীলরা

কাশীনাথ ভট্টাচার্য কলকাতা, ৫ জানুয়ারি ২০১৯ অবহেলা করেছি প্রচুর। ট্রোলও হল অনেক। আসুন না, কয়েকটা দিন একটু বেঁচে নেওয়া যাক সুনীল ছেত্রী, জেজে লালপেখলুয়া, গুরপ্রীত সিং সাঁধু, সন্দেশ ঝিঙ্গনদের জগতে! ওঁরা ততটা পরিচিত নন ভারতীয় ক্রীড়ামানসে। সুনীল ছেত্রী ব্যতিক্রম। অন্তর্জাল-প্রজন্ম আন্দোলিত হয় তাঁকে ঘিরেও। তাঁর টুইট হাজারে হাজারে রিটুইট হয়। তাঁর আবেদন শুনে মাঠ ভরাতে আসেন মানুষ।

ফিরে দেখা – এশিয়ান কাপে ভারত

কাশীনাথ ভট্টাচার্য কলকাতা, ৫ জানুয়ারি ২০১৯ এশিয়ান কাপ মহাদেশীয় প্রতিযোগিতা। আন্তর্জাতিক ফুটবলের সঙ্গে যোগাযোগ এখন বহু ভারতীয় ফুটবলপ্রেমীর। তাদের বোঝার সুবিধার জন্য বলা যেতে পারে, ইউরোপ মহাদেশে যেমন ইউরো হয়, দক্ষিণ আমেরিকায় যেমন কোপা আমেরিকা, আফ্রিকায় যেমন নেশনস কাপ, তেমনই এশিয়ায় এশিয়ান কাপ। মহাদেশীয় কাপগুলোর মধ্যে সবচেয়ে পুরনো কোপা আমেরিকা। তারপরই এশিয়ান কাপ, যা শুরু হয়েছিল

গুরপ্রীত ● শেখা এবং আরও ভাল খেলার ইচ্ছেই দলের মূল কথা

রাইট স্পোর্টস ওয়েব ডেস্ক কলকাতা, ৩ জানুয়ারি ২০১৯ সুনীল ছেত্রী একা নন, ২০১১ এএফসি এশিয়ান কাপে ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন গোলরক্ষক গুরপ্রীত সিং সাঁধুও! তখন তাঁর বয়স সবে আঠের। জাতীয় দলের হয়ে একটিও ম্যাচ খেলেননি। সুব্রত পাল তখন স্বপ্নের ছন্দে। দ্বিতীয় গোলরক্ষক ছিলেন আর এক বাঙালি শুভাশিস রায় চৌধুরি। জাতীয় দলের কোচ আরও এক ইংরেজ বব