ডামাডোলের এভারেস্টে ভারতীয় ফুটবল!

Spread the love

কাশীনাথ ভট্টাচার্য

কলকাতা, ১৪ মার্চ ২০১৯

ভারতীয় ফুটবল আর প্রশ্নমালা এখন সমার্থক! এমন নয় যে আগে ছিল না। কিন্তু এখন ডামাডোলের এভারেস্টে! ১৫ মার্চ সুপার কাপ শুরু হওয়ার কথা। তার আগে,কত যে প্রশ্ন!


প্রসঙ্গ – আই লিগের শেষ ম্যাচ

এক) এআইএফএফ-এর নিযুক্ত ম্যাচ কমিশনার রিপোর্ট দিয়েছে ম্যাচে স্বচ্ছতার অভাব নিয়ে। তাতে ‘নাকি’, এআইএফএফ-এর সচিব কুশল দাস মনে করছেন, টাকাপয়সার লেনদেন ঘটেছে! তো, এআইএফএফ-এর সচিব যদি জেনেই থাকেন, টাকা নিয়ে তাঁদেরই নিযুক্ত ম্যাচ কমিশনার সুব্রহ্মনিয়ম রিপোর্ট দিয়েছেন, কেন তাঁকে নির্বাসিত করা হচ্ছে না? কেনই বা খোলসা করে এআইএফএফ-এর তরফে জানানো হচ্ছে না সংবাদমাধ্যমকে?

pic.twitter.com/lxlIKgBXvA— Ranjit Bajaj (@THE_RanjitBajaj) March 14, 2019

দুই) এআইএফএফ নিযুক্ত ম্যাচ কমিশনারকে ‘জেলের ঘানি টানাতে’ আগ্রহী মিনার্ভা-মালিক রনজিৎ বাজাজ, পরিষ্কার লিখেছেন টুইটারে। চন্ডিগড় আদালতে কেস-টা কি উঠেছিল?

তিন) আদালতে মামলা উঠলে ফয়সালা হবে, নিয়ম। হয় বাজাজ জিতবেন, অথবা হারবেন। জিতলে, তাঁর কথামতো, জেলের ঘানি টানবেন ম্যাচ কমিশনার? তিনি কি উচ্চতর আদালতে যেতে পারেন না? কিংবা, হারলে বাজাজও কি যাবেন না উচ্চতর আদালতে? আই লিগ কি তত দিন ‘এক রুকা হুয়া ফয়সালা?’

চার) মামলা যখন, ফল হিসাবে যদি প্রমাণ হয়, ইচ্ছে করে ম্যাচ ছেড়েছেন মিনার্ভা-মালিক, কী রায় দেবে আদালত? চেন্নাই জড়িত কিনা, প্রশ্ন উঠবে কি? এমন তো হতেই পারে, চেন্নাই জড়িত ছিল না, মিনার্ভা নিজেদের ইচ্ছেয় ম্যাচ ছেড়েছে। পারে না? রায় কী হবে তখন? আর, দুপক্ষই জেনেশুনে ম্যাচ গড়াপেটা করলেই বা কী হবে? আই লিগের বিজয়ী তালিকায় কাদের নাম থাকবে? চেন্নাইয়েরই তো?

পাঁচ) সুইস মিডিয়ায় শিরোনাম, ‘খেতাব কিনেছে এফসি বাসেলের সঙ্গী ভারতীয় দল চেন্নাই?’ ভারতীয় মিডিয়ায় এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে উদ্ধৃত হয়েছে জানিয়ে। প্রসঙ্গত, এফসি বাসেলের সঙ্গে চেন্নাই সিটি এফসি-র চুক্তি হয়েছিল এবং সুইস সংবাদমাধ্যম প্রথম থেকেই এই চুক্তির বিরোধিতা করে এসেছে। সেই খবরের লিঙ্ক –

https://www.blick.ch/sport/fussball/superleague/verdacht-auf-spielmanipulation-hat-der-fcb-partnerklub-chennai-den-meistertitel-gekauft-id15216622.html

প্রসঙ্গ – সুপার কাপ

এক) কতগুলি দল শেষ পর্যন্ত বয়কট করছে? সাত? ছয়? চার্চিল ব্রাদার্স জুড়েছে যখন, আট হওয়া উচিত। সাত ক্লাব বলা হচ্ছে কেন তা হলে?

দুই) বয়কটের ব্যাপারে সাত-ক্লাবের জোটের বক্তব্যে ইস্টবেঙ্গলের নাম আছে। কিন্তু, ইস্টবেঙ্গল কি জোটে আছে? আইএসএল-এ পরের বছর খেলার ব্যাপারে এগিয়ে-থাকা দল কেন এআইএফএফ-এর সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে, তা-ও এমন লিগের পরিচালন পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলে, যে আই লিগে পরের বার আর খেলতেই চাইছে না?

তিন) সুপার কাপ বয়কট করছে মিনার্ভা পাঞ্জাব? তা হলে দল নিয়ে ভুবনেশ্বরে কেন? এআইএফএফ-এর সরকারি বক্তব্য, অনুশীলনও করেছে ১৩ মার্চ বিকেলে এবং ১৪ মার্চ সকালে। কিন্তু, আসেনি ম্যাচের আগের নির্ধারিত সাংবাদিক সম্মেলনে, যা সর্বভারতীয় ফুটবল সংস্থার মতে ‘ অত্যন্ত হতাশাজনক এবং সর্বভারতীয় ফুটবল সংস্থার প্রতি সরাসরি অসম্মান প্রদর্শন।’ তাই এআইএফএফ বলেই দিয়েছে, ১৫ মার্চ (শুক্রবার) সুপার কাপের প্রথম ম্যাচে কলিঙ্গ স্টেডিয়ামে বিকেল পাঁচটার সময় মিনার্ভা পাঞ্জাব এফসি যদি এফসি পুনে সিটির বিরুদ্ধে খেলতে না নামে, প্রতিযোগিতার নিয়ানুযায়ী যা যা করা উচিত, করবে এআইএফএফ। মানে, মোটা অঙ্কের জরিমানা। মানবে ক্লাব-জোট?

চার) আই লিগের দশম দল খেলবে আইএসএল-এ সপ্তম দলের বিরুদ্ধে। নবম দল খেলবে অষ্টমের বিরুদ্ধে, আবার আই লিগের অষ্টম দল খেলবে আইএসএল-এর নবম দলের বিরুদ্ধে। আইএসএল-এর দশম দলের বিরুদ্ধে খেলবে আই ইলগের সপ্তম দল। সমস্যা হল, মিনার্ভা পাজ্ঞাবের তো রিয়েল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে খেলা এখনও বাকি। তা হলে, কী করে নিশ্চিত হয়ে গেল এআইএফএফ যে, মিনার্ভা দশম স্থানেই থাকবে? কাশ্মীরের বিরুদ্ধে এক পয়েন্ট পেলেই তো ১৮ পয়েন্ট নিয়ে নবম হয়ে যেতে পারে মিনার্ভা। কিন্তু, এআইএফএফ তো সুপার কাপ শুরুই করে দিচ্ছে সেই ম্যাচের আগে! মিনার্ভা-মালিক এ-ব্যাপারে আবার আদালতে যাবেন না তো?

পাঁচ) প্রতিযোগিতা বন্ধ গতে চলেছে, আই লিগের সাত ক্লাব তাদের দাবিদাওয়া নিয়ে বসতে চেয়েছে এআইএফএফ-এর সভাপতির সঙ্গে, তবুও কেন বসার সময় বের করে উঠতে পারছেন না প্রফুল প্যাটেল?  কেন এড়িয়ে যেতে চাইছেন মুখোমুখি বৈঠক? কোনও বিশেষ কারণে কী?

সহজ প্রশ্নগুলো, উত্তর অজানা!

Kashinath Bhattacharjee
Covered two FIFA World Cups in Brazil (2014) and Russia (2018), UEFA Champions League Final in Moscow (2008). In Sports Journalism since 1993. twitter: @bkashi
https://www.facebook.com/kashinath.bhattacharjee

2 thoughts on “ডামাডোলের এভারেস্টে ভারতীয় ফুটবল!

  1. সত্যিই কি অদ্ভুত এক পরিস্থিতি। প্রশ্ন হলো যার স্বার্থ রক্ষার জন্যে এটা তৈরি করা হলো?

Leave a Reply