প্রাজ্ঞেশের মতে, তিন সেটের ম্যাচে সবই সম্ভব!

Spread the love

রাইট স্পোর্টস ওয়েব ডেস্ক

কলকাতা, ২৯ জানুয়ারি ২০১৯

ডেভিস কাপ সিঙ্গলসে ভারতের সেরা বাজি প্রাজ্ঞেশ গুনেস্বরন। সাত ধাপ উঠে এটিপি র‍্যাঙ্কিংয়ে তিনি এখন ১০২। প্রথম একশোয় পৌঁছনো সময়ের অপেক্ষা। ইতালির বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ডেভিস কাপ টাইয়ের আগে প্রাজ্ঞেশ আত্মবিশ্বাসী, অঘটন ঘটলেও ঘটতেই পারে।

‘সত্যি কথা বলতে কী, ফরম্যাট পাল্টানোয় আমার খুব একটা অসুবিধা হবে না। পাঁচ সেটের খেলা সব সময় শারীরিক দিক দিয়ে ক্লান্তিকর। আবার, তিন সেটের খেলায় যা খুশি হতে পারে। এখন ডেভিস কাপও আর তিন দিনের নয়, দু-দিনের। তাই খুব বেশি পার্থক্য দেখছি না’, জানিয়েছেন প্রাজ্ঞেশ, মঙ্গলবার সাউথ ক্লাবে।

গত মাসছয়েক দুর্দান্ত ছন্দে আছেন। চ্যালেঞ্জার প্রতিযোগিতায় চারবার ফাইনালে উঠে দুটি খেতাব জিতেছেন। বিশ্বের ২৭ নম্বর দেনিস শাপোভালোভকে স্টুটগার্ট ওপেনে হারিয়েছিলেন ঘাসের কোর্টে। ‘শেষ বছর দুয়েক বহু প্রতিযোগিতায় খেলেছি। আর মাসছয়েক বেশ ভাল ছন্দেই আছি। সেই ছন্দটাই ধরে রাখতে চাই ডেভিস কাপে। অন্য যে কোনও ম্যাচ হিসাবেই দেখছি ডেভিস কাপকেও। মনঃসংযোগ ঠিক রেখে ম্যাচের জন্য প্রস্তুত হই, কোর্টে চেষ্টা করি যা যা ভেবে এসেছি সেগুলোকেই ঠিকঠাক কাজে লাগাতে। পরিস্থিতি বা অন্য কিছু নিয়ে খুব বেশি ভাবতে যাই না’, বলেছেন প্রাজ্ঞেশ।

নিজেকে একশোর মধ্যে তুলে আনতে ডেভিস কাপের পর চিনে খেলতে যাবেন আরও একটি চ্যালেঞ্জার প্রতিযোগিতায়। তারপর ব্যাঙ্ককে আরও দুটি চ্যালেঞ্জারে খেলবেন।

জিশান আলি

ভারতের কোচ জিশান আলি মনে করছেন, সাউথ ক্লাবের কোর্ট এখন আরও ধীরগতির হয়ে গিয়েছে। ‘কোনও কোনও জায়গায় বাউন্স বেশ কম, বল খুব বেশি উঠছে না। ঘাসের কোর্টে সেটা স্বাভাবিক। তবুও বলব, যতটা ভেবেছিলাম তার চেয়েও ধীরগতির কোর্ট এবার সাউথ ক্লাবে,’ বলেছেন জিশান।

এখন ভারতীয়রাও বেশি খেলেন না ঘাসের কোর্টে। তাই, দিন সাতেক আগেই চলে এসেছিলেন কলকাতায়। জিশানের মতে, ‘সেই কারণে কোর্টে স্বচ্ছন্দ্য অবশ্যই। কিন্তু মনে রাখতে হবে, ওদের তিনজন খেলোয়াড় আছে প্রথম ষাটে। তাই আমরাই আন্ডারডগ। ভারতীয় খেলোয়াড়দের মাঠে গিয়ে সেরাটা দিতে হবে যাতে শক্তিশালী বিপক্ষকেও চাপে ফেলতে পারে। প্রতিটি ম্যাচই খুব কঠিন হতে চলেছে, যার বিরুদ্ধে যে-ই খেলুক আর ঘাস, মাটির কোর্ট বা হার্ডকোর্ট, যে কোনও সারফেসে খেলা হোক না কেন। আমাদের কাজটা কঠিন, নিঃসন্দেহে।’

টুর্নামেন্ট রেফারি

ওয়েন ম্যাককিউয়েন পৌঁছে গিয়েছেন কলকাতায়। এসেই ছুটেছিলেন সাউথ ক্লাবে, ব্যবস্থাপনা দেখতে। খুশি কোর্ট দেখে। ‘চিন্তায় ছিলাম কোর্ট নিয়ে। কিন্তু দেখার পর মনে হচ্ছে, খুবই ভাল। একটু চিন্তায় আছি গ্যালারি নিয়ে। আয়োজকরা বলেছেন, শুক্রবারের মধ্যে কাজ শেষ হয়ে যাবে। আশা করছি, ঠিকই বলছেন। যেখানে স্থায়ী গ্যালারির বন্দোবস্ত থাকে না, এমন সমস্যা হতেই পারে। সমস্যার কিছু দেখছি না আপাতত,’ জানিয়েছেন ওয়েন। দুটি দলই প্রতিযোগিতার আগে প্রধান কোর্টে এক ঘণ্টা করে অনুশীলনের সুযোগও পাবে, বলেছেন।

চেন্নাইয়ের প্রাজ্ঞেশ অবশ্য ঘাসের কোর্টে নিজের ছন্দ ধরে রেখে ভারতকে ডেভিস কাপে এগিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসীও। ‘ঘাসে ভালই খেলি, এখানেও খেলা উচিত। নিজেদের সেরাটা দিতে হবে কোর্টে। তারপর দেখা যাবে,’ বলেছেন প্রাজ্ঞেশ, সদ্যসমাপ্ত ইউএস ওপেনে যিনি প্রথম রাউন্ডেই হেরে গিয়েছিলেন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ফ্রান্সিস টিয়াফো-র কাছে, জীবনের প্রথম গ্র্যান্ড স্লামে।

Leave a Reply